ধরিত্রী দিবসের আলোচনায় বক্তারা : টেকসই উন্নয়নের জন্য দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের পরিবেশ রক্ষার কোনো বিকল্প নেই

Daily Bhorer Dak
Monday, 25 April, 2016 at 12:00 AM
———————————————
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের দারিদ্র্য ও পরিবেশ অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত। এ অঞ্চলের পরিবেশ যেমন বৈচিত্র্যময় তেমনি বাংলাদেশের উন্নয়নের ক্ষেত্রে পালন করে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। কিন্তু এ দেশের সবথেকে দারিদ্র্যপীড়িত অঞ্চলগুলোর একটি দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল। এ অঞ্চলের দারিদ্র্য দূর করা এবং পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য রাষ্ট্রীয় বিনিয়োগ নিশ্চিত করা অতি জরুরি।

আজ (২২ এপ্রিল ২০১৬, শুক্রবার) ৫০তম ধরিত্রী দিবস উপলক্ষে এ্যাওসেড, ক্লিন, পরিবর্তন-খুলনা ও পথিকৃত-এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তারা এ কথা বলেন। ক্লিন-এর চেয়ারপারসন সাজ্জাদুর রহিম পান্থ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা সঞ্চালনা করেন এ্যাওসেড-এর নির্বাহী পরিচালক শামীম আরফিন।

সভায় ধারণাপত্র পাঠ করেন ক্লিন-এর প্রধান নির্বাহী হাসান মেহেদী। তিনি বলেন, এ বছরের ধরিত্রী দিবসটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ কেননা এই দিনেই স্বাক্ষরিত হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় ‘প্যারিস ঘোষণা’। কিন্তু প্যারিস ঘোষণার সঙ্গে অর্থায়ন ও কার্বন নির্গমন কমানোয় কোনো স্পষ্ট লক্ষ্য দেখা যাচ্ছে না। বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির মনিরুল হক বাচ্চু বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল সবথেকে ক্ষতিগ্রস্থ অঞ্চলের একটি। পরিবেশ-প্রতিবেশ সংরক্ষিত না হলে আগামী দিনে এ অঞ্চল পুরোপুরি বসবাসের অযোগ্য হয়ে উঠবে। দেশ-এর সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, দারিদ্র্য দূর করার জন্যও এ অঞ্চলে যথেষ্ঠ বিনিয়োগ প্রয়োজন। কিন্তু উন্নয়ন ও পরিবেশ এখন মুখোমুখি দাঁড়িয়ে গেছে। পরিবেশ রক্ষা করে কীভাবে সাধারণ মানুষের উন্নয়ন নিশ্চিত করা যায় সেটি নিয়ে ভাবা প্রয়োজন।

পানি অধিকার কমিটির হুমায়ুন কবির ববি বলেন, পানীয় জল ও বিদ্যুৎ সরবরাহে খুলনার উন্নয়ন হলে তা এ অঞ্চলের পরিবেশের উপর কী প্রভাব ফেলবে তা নিয়ে এখনই পর্যালোচনা করা দরকার। সভায় দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের পরিবেশ ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও উন্নয়নকর্মীদের যৌথ উদ্যোগ গ্রহণ করার উপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নারীনেত্রী রেহানা আখতার, পথিকৃৎ-এর নির্বাহী প্রধান কিউ এস ইসলাম মুক্ত, পরিবর্তন-খুলনা’র নাজমুল আযম ডেভিড, শিরিন পারভীন, ইমরান ইমন, এ্যাওসেড-এর হেলেন খাতুন, আব্দুর রহিম, সুমন বিশ্বাস, ক্লিন-এর রেজাউল করিম জিতু প্রমূখ।
হেলেন খাতুন, সহকারী সমন্বয়কারী, এ্যাওসেড, খুলনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes:

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>