সুন্দরবনে পরিবেশগত দুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবি

Sampadona.com | 12 December 2014
———————————————
Drowned Oil tanker and slicked oil in Shela River
বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনা প্রেস ক্লাবে সুন্দরবন পর্যবেক্ষণ দলের ব্যানারে বাপা, বেলা, ক্লিন, সিএসআরএল, এফপিপি ও ম্যাপ এর যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে ৬ দফা দাবি উপস্থাপন করেন। দাবি গুলো হলো, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন ২০১২৫ ও পরিবেশ সংরক্ষণ আইন (সংশোধিত ২০১০) এর আওতায় সুন্দরবনে পরিবেশগত দুর্গত এলাকা ঘোষণা করতে হবে; জরুরী ভিত্তিতে সুন্দরবনের নদী ও খাল থেকে তেল অপসারণের জন্য সর্বশক্তি নিয়োগ করতে হবে। এজন্য সম্মিলিত সামরিক ও বেসামরিক বাহিনী নিয়োগ করতে হবে এবং দেশি ও সহজলভ্য উপকরণ দিয়ে সরকারি-বেসরকারি সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবক নিযুক্ত করতে হবে; যদিও কোনো অর্থমূল্যে পরিবেশগত ক্ষতি পুরোপুরি থামানো যাবে না; তবুও তেল-দূষণের জন্য দায়ী কোম্পানির কর্তৃপক্ষকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক ক্ষতিপূরণ আদায় করতে হবে যাতে তেল অপসারণ ও বাদাবন পুনর্বাসনের খরচ মেটানো যায় এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের দুর্ঘটনা বন্ধ হয়; সুন্দরবনের ভেতর থেকে বাণিজ্যিক নৌযান স্থায়ীভাবে বন্ধ করতে হবে; তেল অপসারণের কার্যক্রম যথাযথভাবে করার জন্য তদারকির দায়িত্ব পরিবেশ মন্ত্রীকে গ্রহণ করতে হবে; জরুরিভিত্তিতে তেল-দূষণ দূর করার জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ও উপকরণ ক্রয়ে অবিলম্বে উদ্যোগ নিতে হবে। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের সদস্য সচিব হাসান মেহেদী। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন গৌরাঙ্গ নন্দী, এডভোকেট বাবুল হাওলাদার, মাহফুজুর রহমান প্রমুখ। সম্মেলনে খুলনা বেলার সমন্বয়কারী মাহফুজুর রহমান মুকুল বলেন, ট্যাঙ্কার ডুবিতে তেল দূষণে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ৫শ’ থেকে হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes:

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>