অবিলম্বে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন সক্রিয় করার দাবি

http://ekusheralo24.com | November 15, 2014
Mehnaz Kabir Lipu
——————————————————
Professor Dilip Kumar Datta, Environmental Science discipline, Khulna University is addressing the participants of CLEAN’s program on Sidr Day 2014
দ্রুত দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন সক্রিয় করা না হলে দুর্যোগের সময় দরিদ্র ও ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীর দুর্ভোগ বহুগুণে বেড়ে যাবে। আজ সিএসএস আভা সেন্টারে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় বক্তারা এ অভিমত ব্যক্ত করেন। ২৫০টিরও বেশি সংগঠনের জোট গ্রামীণ জীবনযাত্রার স্থায়িত্বশীল উন্নয়নের জন্য প্রচারাভিযান (সিএসআরএল) এবং উপকূলীয় জীবনযাত্রা ও পরিবেশ কর্মজোট (ক্লিন)-এর যৌথ উদ্যোগে সুপার সাইক্লোন সিডরের ৭ম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে এ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। দৈনিক কালের কণ্ঠের খুলনা ব্যুরো প্রধান ও পরিবেশ-কথক গৌরাঙ্গ নন্দীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট জলবায়ু বিজ্ঞানী ও সিএসআরএল-এর সাবেক সমন্বয়কারী ড. আহসান উদ্দীন আহমেদ এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের অধ্যাপক ড. দিলীপ কুমার দত্ত। সভায় ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন ক্লিন-এর প্রধান সঞ্চালক হাসান মেহেদী।
আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, ২০০৭ সালে সিডরের আঘাতে ১০ হাজার মানুষের মৃত্যু, ৩৫ লাখ মানুষের বাস্তুচ্যূতি এবং ১৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকার ক্ষতি হবার পর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন প্রণয়ন করার জন্য কয়েক বছর ধরে সিএসআরএল আন্দোলন করে। অবশেষে ২০১২ সালে আইনটি প্রণীত হলেও দু’ বছরেও প্রয়োজনীয় বিধিমালা ও প্রশাসনিক আদেশ জারি করা হয় নি। ফলে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এ আইনটি যথাযথভাবে প্রয়োগ করা হচ্ছে না। ইতোমধ্যে অনেকগুলো বেড়িবাঁধ কেটে নোনাপানি ঢোকানোর ঘটনা ঘটলেও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইনের আওতায় একটি মামলাও করা হয়নি। কারণ, দোষীদের বিরুদ্ধে মামলা করার অধিকার শুধুমাত্র জেলা প্রশাসকের। প্রশাসনিক আদেশ জারি করা ছাড়া জেলা প্রশাসক এ ধরনের ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারেন না।
বক্তারা অবিলম্বে প্রয়োজনীয় বিধিমালা ও প্রশাসনিক আদেশ জারি করে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন সক্রিয় করা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংশ্লিষ্ট স্থানীয় ও জাতীয় কমিটিসমূহ কার্যকর করা, জাতীয় ও জেলা পর্যায়ে জরুরি দুর্যোগ মোকাবেলা তহবিল প্রদান করা, জলবায়ু অভিযোজন ও দুর্যোগ প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রমকে সমন্বিত করা ও কেন্দ্রীভূত প্রশাসনিক জটিলতা দূর করাসহ ৬ দফা দাবি জানান।
আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাসাস-এর শামীমা সুলতানা শিলু, রূপায়নের খালিদ হোসেন, ছায়াবৃক্ষের মাহবুব আলম বাদশা, আইআরভি’র আজিজুর রহমান ছবি, এ্যাওসেড-এর পলাশ দাশ, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারজানা খাতুন, ক্লিন-এর আকবর হোসেন, রেজাউল করিম জিতু প্রমূখ।